Friday 15 April, 2016
International | English Version

সাইবার অপরাধের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস।

Sun, May 8th, 2016 | Published On: admin

সাইবার অপরাধ কী ?

সাইবার অপরাধের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস।

‘সাইবার অপরাধ’ বলতে ইন্টারনেট ব্যবহার করে যে অপরাধ করা হয়, তাকেই বোঝানো হয়। খুব সাধারন অর্থে সাইবার অপরাধ হলো যেকোন ধরনের অনৈতিক কাজ, যার মাধ্যম বা টার্গেট উভয়ই হলো কম্পিউটার। বাংলাদেশে সাইবার ক্রাইমের পরিচিতি বা এ অপরাধ দমনের জন্য সংশ্লিষ্ট আইনটি অনেকেরই জানা নেই।

“তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন ২০০৬” আমাদের এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়। এ আইনে ইন্টারনেট অর্থ এমন একটি আন্তর্জাতিক কম্পিউটার নেটওয়ার্ক, যার মাধ্যমে কম্পিউটার, সেলুলার ফোন বা অন্য কোন ইলেকট্রনিক পদ্ধতি ব্যবহারকারীরা বিশ্বব্যাপী একে অপরের সাথে যোগাযোগ ও তথ্যের বিনিময় এবং ওয়েবসাইটে উপস্থাপিত তথ্য অবলোকন করতে পারে। সাইবার অপরাধ অতিপরিচিত ও ভীতিকর একটি শব্দ। তথ্য চুরি, তথ্য বিকৃতি, প্রতারনা, ব্ল্যাকমেইল, অর্থ চুরি ইত্যাদি তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে করা হলে সেগুলোকে সাধারন ভাষায় সাইবার অপরাধ বলা হয়।

সাইবার অপরাধ মূলত কম্পিউটারে ব্যবহৃত কর্মকাণ্ড, যার নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে বিশ্বব্যাপী অপরাধ পরিচালিত করে থাকে অপরাধীরা । বিভিন্ন ধরনের সাইবার অপরাধ সাইবার আইন ইন্টারনেট আইন নামেও পরিচিত। অন্যদিকে সাইবার অপরাধ পরিচিত সাইবার টেররিজম বা সাইবার সন্ত্রাস নামে। দু’টি পর্যায়ে এ ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডকে ভাগ করা সম্ভব।
১। ইন্টারনেটের মাধ্যমে কম্পিউটার, নেটওয়ার্ক অবকাঠামোকে সরাসরি আক্রমণ।
২। ইন্টারনেটের মাধ্যমে ব্যক্তি ও জাতীয় নিরাপত্তা ব্যতয় ঘটানো। এ দুই অংশে সাইবার অপরাধও ঘটতে পারে

*  ভাইরাস আক্রমণ।

This Post Has Been Viewed 12 Times