Friday 15 April, 2016
International | English Version

নড়াইলে স্বামী ছাড়াই সন্তান প্রসব পালিয়ে গেল স্ত্রী

Sun, May 8th, 2016 | Published On: admin

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি: স্বামী প্রবাসে থাকা অবস্থায় স্ত্রীর গর্ভে অবৈধ কন্যা সন্তান। গতকাল রাত সাড়ে ১২ টার সময় নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফুটফুটে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন প্রবাসীর স্ত্রী সাথি খানম ।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রায় ২ বছর আগে নড়াইল সদর উপজেলার গন্ধর্বখালী গ্রামের মোঃ সাহাবুবুর রহমান এর সাথে পেড়লী গ্রামের মোঃ মিঠু মোল্যার কন্যা সাথী খানমের ইসলামী শরীয়া মোতাবেক বিবাহ হয়। বিবাহের এক মাস স্বামী মাহাবুুবুর রহমান চাকুরির জন্য প্রবাসে জীবিকার জন্য পাড়ি জমান। সেখানে সে খুব ধৈর্য্যেও সহিত টাকা পয়সা ইনকাম করে সংসারে সচ্ছলতা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছিল। এবং জমানো টাকা পয়সা স্বর্ণালোংকার সহ স্ত্রীকে বিশ্বাস করে তার নামে পাঠাতেন। কিন্তু তার স্ত্রী বিশ্বাসের কি মর্যাদা দিলেন?
অভিযোগকারী জনান, মাহাবুবুর রহমান ২ বছর ২ মাস পর বাড়িতে ফিরে এসে দেখেন তার স্ত্রী অসুস্থ অবস্থায় পেটে ব্যাথার যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছেন। তাৎক্ষনিক অবস্থায় তিনি তার স্ত্রী কে নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসেন। চিকিৎসক পরীক্ষা করে তাকে জানান, তার স্ত্রী সাথি খানম গর্ভবতী, সে প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছেন। একথা শুনে মাহাবুবের সাথায় যেন আকাশ ভেঙ্গে পড়ে। মাহাবুবুর অচেতন অবস্থায় তিনি হাসপাতালের ফ্লোরে পড়ে যান। এ অবস্থায় তাকে চিকিৎসা প্রদান করতে হয়।
চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রাত প্রায় সাড়ে ১২ টার সময় তার স্ত্রী একটা কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। এখন এলাকাবাসীর প্রশ্ন, স্বামী বিদেশ থাকতে কি করে তার পেটে সন্তান আসল? কে এই সন্তানের বাবা?
এদিকে স্ত্রী সাথি খানম লজ্জায় মুখ দেখাতে না পারার ভয়ে, এবং সন্তান ও নিজেকে বাচাতে কাউকে না জানিয়ে হাসপাতাল ছেড়ে সকালে পালিয়ে যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জৈনক এক ব্যক্তি জানান, স্বামীর দুর্বলতার সুযোগে তার স্ত্রী অনেকের সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং মেলা মেশা করতে থাকে। এই সন্তান তাদের কারও হবে। তার স্বামী যে টাকা পয়সা স্বর্ণালোংকার বিদেশ থেকে পাঠিয়েছে তার সবই সেই স্ত্রী সাথি খানমের কাথে ছিল। পরিস্থিতি এমন হবে জানতে পেরে আগথেকে সাথি খানম সবকিছু অন্যত্র সরিয়ে রেখেছিল। এখন হয়তো সে তার কন্যার বাবার কাছে আশ্রয়ের জন্য পালিয়ে গেছে।
তবে ঘটনার সত্যতা না পাওয়া পর্যন্ত প্রশ্ন মুখী গ্রামবাসি। কি হবে এই মাহাবুবুর রহমান এর? কি হবে এই কন্যা সন্তান ও স্ত্রী সাথী খানমের?
এ বিষয়ে সঠিক তদন্ত ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাহাবুবুর রহমান থানা একটি অভিযোগ দায়ের করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন বলে জানা গেছে।

This Post Has Been Viewed 37 Times