Friday 15 April, 2016
International | English Version

নাকে পলিপ কী করবেন

Tue, Nov 15th, 2016 | Published On: admin

আমাদের নাকের আশপাশে কিছু বায়ু-প্রকোষ্ট বা সাইনাস আছে। এদের নাম ম্যাক্সিলারি সাইনাস, ইথময়েড সাইনাস, স্ফেনয়েড সাইনাস।

এ সাইনাসগুলো অ্যালার্জির কারণে বা নাকের ভেতর ফাংগাল ইনফেকশনের জন্য ফুলতে ফুলতে আঙ্গুরের থোকার মতো হয়। একে পলিপ বলে, সাইনাসের এ পলিপ বাড়তে বাড়তে একসময় নাকের ভেতর চলে আসে এবং তখন আমরা খালি চোখে দেখতে পাই। পলিপে ইনফেকশন হলে বা আঘাত পেলে লালচে রং ধারণ করে। নাকের মধ্যে এ মাংস ফুলে যাওয়াকে হাইপারট্রফিড ইনফেরিয়র টারবিনেট বলে। নাকের ভেতরের পাশের দেয়ালের দুদিকে মাংসপিণ্ড ফুলে যাওয়ায় এ সমস্যা সৃষ্টি হয়।

লক্ষণ : এ রোগীরা সর্দি ঝরা বা নাক বন্ধ ভাবে ভুগতে থাকেন। সর্দি নাকের পেছনের দিকে চলে যাওয়াতে এদের সব সময় ঢোক গেলা বা পরিষ্কার করার প্রবণতা দেখা যায়। অসুখ বাড়তে থাকলে দুটি নাকই বন্ধ হয়ে যায়। যে কোনো ধোঁয়া বা ধুলাবালিতে এদের প্রচণ্ড হাঁচি হয়। নাকে দুর্গন্ধ পাওয়া যায় ও মাথাব্যথা হয়।

চিকিৎসা : প্রাথমিকভাবে করণীয় হল ধুলাবালি, ধোঁয়া ও ঠাণ্ডা এড়িয়ে চলা। চিকিৎসকের পরামর্শে স্টেরয়েড স্প্রে ব্যবহার করা যায়। পলিপ দিয়ে নাক সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে গেলে অপারেশন করতে হয়।

এনডোসকোপের মাধ্যমে পলিপগুলো শেকড় থেকে ফেলে দেয়া হয়।

This Post Has Been Viewed 42 Times

Related Posts

ধর্ষককে ধরল র‌্যাব, ‘ছাড়ল' পুলিশ!

ধর্ষককে ধরল র‌্যাব, ‘ছাড়ল’ পুলিশ!


এটা কি পুলিশের কাণ্ডজ্ঞানহীনতা, অসতর্কতা, নাকি অন্য কিছু? এক গারো তরুণীকে ধর্ষণের বিস্থারিত...

পুনর্জন্মের আশায় কিশোরীর দেহ সংরক্ষণের পক্ষে আদালতের রায়

পুনর্জন্মের আশায় কিশোরীর দেহ সংরক্ষণের পক্ষে আদালতের রায়


ক্যান্সারে মারা গিয়েছিল ১৪ বছরের মেয়েটি। কোন একদিন আবার তাকে বাঁচিয়ে তোলা বিস্থারিত...